অবৈধ অর্থে দেশের বিরুদ্ধে লবিস্ট নিয়োগ করেছে বিএনপি তথ্যমন্ত্রী
অবৈধ অর্থে দেশের বিরুদ্ধে লবিস্ট নিয়োগ করেছে বিএনপি তথ্যমন্ত্রী

অবৈধ অর্থে দেশের বিরুদ্ধে লবিস্ট নিয়োগ করেছে বিএনপি তথ্যমন্ত্রী

অবৈধ অর্থে দেশের বিরুদ্ধে লবিস্ট নিয়োগ করেছে বিএনপি তথ্যমন্ত্রী, এদেশে বিএনপির রাজনীতি করার অধিকার আছে

কি না জানতে চাইলে তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ বলেন, দলটি অবৈধ অর্থ ব্যয় করে দেশের বিরুদ্ধে

বিদেশে লবিস্ট ফার্ম নিয়োগ করেছে।মঙ্গলবার (১৮ জানুয়ারি) দুপুরে মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে

তিনি এ মন্তব্য করেন।তিনি আরও বলেন, “বিএনপি নেতৃত্বাধীন জোট বিশেষ করে বিএনপি বাংলাদেশের বিরুদ্ধে নানা ষড়যন্ত্রে লিপ্ত।

 

অবৈধ অর্থে দেশের বিরুদ্ধে লবিস্ট নিয়োগ করেছে বিএনপি তথ্যমন্ত্রী

আমরা দীর্ঘদিন ধরেই এটা বলে আসছি, কিন্তু তারপরও অনেকের মনে প্রশ্ন থাকতে পারে।” প্রকৃতপক্ষে বিএনপি দেশের উন্নয়ন ও অগ্রগতিকে

বাধাগ্রস্ত করতে মোটা অংকের টাকা খরচ করে লবিস্ট নিয়োগ করে যুক্তরাষ্ট্রসহ বিভিন্ন স্থানে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করছে।

তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী বলেন, “2015 সালে, বিএনপি একটি রাজনৈতিক দল হিসেবে একটি লবিস্ট ফার্মের মাধ্যমে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে তথ্য

জমা দিয়েছিল।” সেখানে সংগঠনটির সঙ্গে বিএনপি সমঝোতায়

পৌঁছেছে, যা গতকাল সংসদে বলেন শাহরিয়ার আলম। বিএনপি তাদের নতুন প্লাটুনের অফিস ঠিকানা নিয়ে এই ফার্মের সঙ্গে চুক্তি করেছে।

তারা প্রতি মাসে কোম্পানিকে পঞ্চাশ হাজার ডলার এবং প্রাথমিক দেড় মিলিয়ন ডলার অগ্রিম পরিশোধ করে। অর্থাৎ তিন বছরে প্রায় দুই মিলিয়ন

ডলার পরিশোধ করেছে তারা। নয়া পল্টনের কার্যালয়ের ঠিকানা দিয়ে করা চুক্তিকে অস্বীকার করার কোনো কারণ নেই। শুধু তাই নয়, তারা বিভিন্ন

নামে ১২টিরও বেশি লবিস্ট ফার্মের সঙ্গে চুক্তি করেছে এবং এ জন্য তারা কোটি কোটি ডলার ব্যয় করেছে। অর্থাৎ দেশবিরোধী ষড়যন্ত্র, দেশের

উন্নয়ন-অগ্রগতিকে বাধাগ্রস্ত করতে, দেশের রপ্তানি বাণিজ্যকে বাধাগ্রস্ত করতে দেশবিরোধী অপপ্রচার চালানোর জন্য সংগঠন হিসেবে লবিস্ট নিয়োগ করে এসব কাজ করছে বিএনপি।

ডক্টর হাসান স্মৃতিচারণ করে বলেন, “আপনি জানেন, কয়েক বছর

আগে বেগম খালেদা জিয়া ওয়াশিংটন টাইমস-এ নিজের নামে একটি নিবন্ধ লিখেছিলেন। সেই নিবন্ধে তিনি যুক্তরাষ্ট্রে বাংলাদেশি পণ্য আমদানি

বন্ধের আহ্বান জানিয়েছিলেন। তিনি লিখেছেন, যুক্তরাষ্ট্র যেন বাংলাদেশ থেকে আমদানি না করে!”বিএনপি দেশে তাদের অফিসের ঠিকানা

দিয়ে চুক্তি করে বিদেশীলবি ফার্মগুলোকে বিলিয়ন বিলিয়ন ডলার দিচ্ছে। তারা নির্বাচন কমিশনকে কত খরচ দিয়েছে তার হিসাব দেয়নি।

অবৈধ অর্থে দেশের বিরুদ্ধে লবিস্ট নিয়োগ করেছে বিএনপি তথ্যমন্ত্রী

নির্বাচন কমিশনকে তলব করা উচিত। তাদের,” মন্ত্রী ড. দ্বিতীয়ত, তারা এই মিলিয়ন ডলার কোথা থেকে পেয়েছে তা আমাদের দেখতে হবে।

আমি মনে করি দুদকেরও এখানে ভূমিকা রাখা দরকার। এছাড়া আয়কর বিভাগকেও বিষয়টি তদন্ত করে তাদের তলব করা দরকার।

অর্থাৎ রাজনৈতিক দল হিসেবে বিএনপি দেশের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রে লিপ্ত এবং আমাদের কাছে এর দালিলিক প্রমাণ রয়েছে। যে রাজনৈতিক

দলগুলো দেশের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করছে তাদের কি সে দেশে রাজনীতি করার অধিকার আছে? ‘

About admin

Check Also

খালেদা জিয়া বাইরে থেকে লাভ কী তাঁকে কারাগারে

খালেদা জিয়া বাইরে থেকে লাভ কী তাঁকে কারাগারে

খালেদা জিয়া বাইরে থেকে লাভ কী তাঁকে কারাগারে, বর্তমান সরকার ভুল পথে চলছে বলে মনে …

Leave a Reply

Your email address will not be published.