কাদের মির্জার বিরুদ্ধে ৮ চেয়ারম্যান প্রার্থীর অভিযোগ
কাদের মির্জার বিরুদ্ধে ৮ চেয়ারম্যান প্রার্থীর অভিযোগ

কাদের মির্জার বিরুদ্ধে ৮ চেয়ারম্যান প্রার্থীর অভিযোগ

কাদের মির্জার বিরুদ্ধে ৮ চেয়ারম্যান প্রার্থীর অভিযোগ, নোয়াখালীর বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জার বিরুদ্ধে

ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ করেছেন আওয়ামী লীগ সমর্থিত আট চেয়ারম্যান প্রার্থী। বুধবার (২৬ জানুয়ারি)

দুপুরে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার আটটি ইউপিতে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি পদে মনোনীত প্রার্থীরা জেলা প্রশাসক ও নোয়াখালী

পুলিশ সুপার কার্যালয়ে লিখিত অভিযোগ করেন।

 

কাদের মির্জার বিরুদ্ধে ৮ চেয়ারম্যান প্রার্থীর অভিযোগ

লিখিত অভিযোগে বলা হয়, বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আব্দুল কাদের মির্জা আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আটটি ইউনিয়নে তার

অনুসারীদের জোর করে কেন্দ্র দখলের চেষ্টা করছেন। আব্দুল কাদের মির্জা এরই মধ্যে বিভিন্ন ইউনিয়নের বিভিন্ন ওয়ার্ডে বিভিন্ন দলের নেতাকর্মীদের

নিয়ে শারীরিকভাবে উপস্থিত থেকে আমাদের সমর্থক ও সাধারন ভোটারদের ভয়ভীতি দেখিয়ে তার সন্ত্রাসী দিয়ে যাচ্ছেন। তিনি মোবাইল ফোনে

অনেককে হুমকিও দিচ্ছেন। ফলে সাধারণ ভোটারদের মধ্যে চরম আতঙ্ক বিরাজ করছে।তিনি আরও অভিযোগ করেন, তিনি নির্বাচনী

আচরণবিধি লঙ্ঘন করেছেন এবং পৌরসভার সরকারি গাড়িসহ বিভিন্ন গণমাধ্যমে তার সশস্ত্র সন্ত্রাসীদের নিয়ে হাজির হয়ে উসকানিমূলক বক্তব্য

দিয়ে নির্বাচনের পরিবেশ নষ্ট করার চেষ্টা করেছেন। ফলে আগামী

৮ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠেয় নির্বাচনকে কেন্দ্র করে দাঙ্গাসহ সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড সংগঠিত হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। এ প্রেক্ষাপটে আবদুল কাদের মির্জাকে

এ ধরনের উস্কানিমূলক কার্যক্রম বন্ধ করে অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন অনুষ্ঠানের প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে বলা হয়। কার্যক্রম তার কনভয় থেকে

সশস্ত্র সন্ত্রাসীদের কাছ থেকে অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার করে নির্বাচন।উপজেলা আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থীরা হলেন- সিরাজ উদ্দিন ইউপি

প্রার্থী মাইন উদ্দিন মামুন (আনারস), চরপর্বতী ইউপি চেয়ারম্যান

প্রার্থী মাহবুবুর রশিদ মঞ্জু (আনারস), ৩ নং চরহাজারী ইউপির নুরুজ্জামান স্বপন (অটোরিকশা), চরসামা ইউপির হানিফ সবুজ (আনারস)।

মিলন. ইউপি প্রার্থী জায়েদাল হক কচি (আনারস), রামপুর ইউপি প্রার্থী সিরাজিস সালেকিন রিমন (আনারস), মুছাপুর ইউপি চেয়ারম্যান প্রার্থী

নজরুল ইসলাম চৌধুরী শাহীন (মোটর সাইকেল), চর এলাহী ইউপি প্রার্থী আব্দুর রাজ্জাক (আনারস)।মুছাপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান প্রার্থী

নজরুল ইসলাম চৌধুরী শাহিন বলেন, “আমি এই ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান। উপজেলা আওয়ামী লীগ আমাকে সমর্থন করেছে বলে কাদের

কাদের মির্জার বিরুদ্ধে ৮ চেয়ারম্যান প্রার্থীর অভিযোগ

মির্জা তার এক বিচ্ছিন্ন অনুসারী আমেরিকা প্রবাসীকে মনোনয়ন দিয়েছেন। তিনি সরকারকে ব্যবহার করছেন। যানবাহন। ভোটারদের ভয় দেখাতে মিত্ররা।”

উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা খিজির হায়াত খান জানান, উপজেলা আওয়ামী লীগ সমর্থিত আট প্রার্থীর জয়ের সম্ভাবনা

দেখে কাদের মির্জা তার অনুসারীদের পক্ষে এ আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। আমাদের প্রার্থীরা তাৎক্ষণিকভাবে বিষয়টি জেলা প্রশাসককে জানান। ‘

এ বিষয়ে জানতে বুধবার বিকেলে মেয়র কাদের মির্জাকে ফোন করা হয়। তার সহকারীর পরিচয় দিয়ে একজনকে রিসিভ করে। ফোনালাপের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, মেয়র এখন বিশ্রামে আছেন, পরে ফোন করবেন।

জেলা প্রশাসক দেওয়ান মাহবুবুর রহমান বলেন, আমি সাংবাদিকদের মাধ্যমে বিষয়টি জানতে পেরেছি। তবে এখন পর্যন্ত (বিকাল ৫টা) কোনো লিখিত জবাব পাওয়া যায়নি। অভিযোগ.

About admin

Leave a Reply

Your email address will not be published.