দেশের ক্ষতি করতেই বিএনপি লবিস্ট নিয়োগ করেছে পররাষ্ট্রমন্ত্রী
দেশের ক্ষতি করতেই বিএনপি লবিস্ট নিয়োগ করেছে পররাষ্ট্রমন্ত্রী

দেশের ক্ষতি করতেই বিএনপি লবিস্ট নিয়োগ করেছে পররাষ্ট্রমন্ত্রী

দেশের ক্ষতি করতেই বিএনপি লবিস্ট নিয়োগ করেছে পররাষ্ট্রমন্ত্রী, পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, বিএনপি দেশের ক্ষতি করার জন্য বিদেশে

লবিস্ট নিয়োগ করেছে। এ কে আব্দুল মোমেন। এর বিপরীতে, আওয়ামী লীগ সুশাসন ও দেশের ইতিবাচক ভাবমূর্তি তুলে ধরতে লবিস্ট নিয়োগ

করেছে।মঙ্গলবার (২৫ জানুয়ারি) রাজধানীর আগারগাঁওয়ে মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরে ‘মানবিক নীতি: এখানে এবং এখন’ প্রদর্শনীর উদ্বোধন শেষে সাংবাদিকদের

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবদুল মোমেন বলেন, প্রাপ্ত তথ্যে দেখা গেছে, বিএনপি অনেক লবিস্ট নিয়োগ করেছে।

 

দেশের ক্ষতি করতেই বিএনপি লবিস্ট নিয়োগ করেছে পররাষ্ট্রমন্ত্রী

লবিস্ট নিয়োগ করা আইনের বিরুদ্ধে নয়। তবে কেন লবিস্ট নিয়োগ করা হয়েছিল তা দেখার বিষয়। যখন কেউ একজন মানুষকে কিডন্যাপ

করার জন্য টাকা দেয়, কিন্তু সেটা উদ্দেশ্য নয়। অথবা অনেকে যখন দেশের ক্ষতির জন্য ক্ষতিপূরণ দিচ্ছেন, লবিস্টদের নিয়োগ দিচ্ছেন, তখন

তা খুবই অন্যায়। বিএনপি কতজন লবিস্ট নিয়োগ করেছে তার যথেষ্ট তথ্য আমাদের কাছে আছে। দেশের ক্ষতি করাই এর মূল উদ্দেশ্য। তোমার

আর আমার মধ্যে ঝগড়া হতেই পারে, কিন্তু তোমার আর আমার ঝগড়া দেশের স্বার্থে কি না তা তোমাকে বুঝতে হবে।তিনি বলেন, যুদ্ধাপরাধীদের

যাতে শাস্তি না হয় সেজন্য বিএনপি লবিস্ট নিয়োগ করেছে। এরপর

আওয়ামী লীগ ভুল ধারণা পাল্টাতে লবিস্ট নিয়োগ করে। আমরা একে পিআর ফান্ড বলি, লবিস্ট নিয়োগ নয়। এগুলো অনেকদিন ধরেই আছে

, নতুন নয়। এরশাদের আমল থেকেই এগুলো প্রচলিত আছে। যাই হোক, অন্তত আমি প্রথমে নিজেকে ব্যাখ্যা না করে দমে যাইনি। দেশের

ক্ষতি করতে, কাউকে খুন করতে, অপহরণ করতে আপনি অন্য কাউকে নিয়োগ দিচ্ছেন। এগুলো কোনোভাবেই দেশবাসী মেনে নেবে না।

এর আগে প্রদর্শনীর উদ্বোধন করেন মাননীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড.

এ কে আব্দুল মোমেন। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী মো. মোঃ এনামুর রহমান। এছাড়াও বক্তব্য

রাখেন বাংলাদেশে নিযুক্ত সুইজারল্যান্ডের রাষ্ট্রদূত নাথালি শোয়ার্জ, বাংলাদেশে আইসিআরসি প্রতিনিধি দলের প্রধান মিসেস কাটজা লরেঞ্জ

এবং মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরের ট্রাস্টি সারা জেকার।বাংলাদেশে সুইস দূতাবাস, ইন্টারন্যাশনাল কমিটি অফ দ্য রেড ক্রস (ICRC) এবং মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘর

ফটো এলিসি মিউজিয়াম, লুসান, সুইজারল্যান্ডের সহযোগিতায় আয়োজিত ‘মানবিক নীতি: এখানে এবং এখন’ শীর্ষক প্রদর্শনীটি 1971 সালের

দেশের ক্ষতি করতেই বিএনপি লবিস্ট নিয়োগ করেছে পররাষ্ট্রমন্ত্রী

মুক্তিযুদ্ধকে প্রতিফলিত করে। এবং তার পরের ঘটনা। বাংলাদেশে ICRC কার্যক্রমের দশ বছর। বাংলাদেশে দীর্ঘদিন ধরে সুইজারল্যান্ডের

মানবিক কর্মকাণ্ড তুলে ধরা হচ্ছে। এছাড়াও, 10 জন সুইস ফটোগ্রাফার দ্বারা তৈরি 10টি শর্ট ফিল্ম দৈনন্দিন জীবনের মানবিক নীতিগুলিকে

প্রতিফলিত করে৷ এছাড়াও প্রদর্শনীতে পুরষ্কারপ্রাপ্ত ৬টি আলোকচিত্র রয়েছে।রাষ্ট্রদূত নাথালি শোয়ার্টজ বলেন, মানবিক নীতি সুইস জনগণের গভীরে

প্রোথিত এবং এই অসামান্য মানবিক মূল্যবোধের ভিত্তিতেই ১৯৭০-এর দশকের গোড়ার দিকে বাংলাদেশের সঙ্গে সুইজারল্যান্ডের বন্ধুত্ব শুরু হয়।

তিনি আরও বলেন, “যেহেতু সুইজারল্যান্ড ও বাংলাদেশ দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের ৫০ বছর উদযাপন করছে, এই যৌথ প্রদর্শনীটি আমাদের কাছে বিশেষ গুরুত্ব বহন করে।”

About admin

Check Also

খালেদা জিয়া বাইরে থেকে লাভ কী তাঁকে কারাগারে

খালেদা জিয়া বাইরে থেকে লাভ কী তাঁকে কারাগারে

খালেদা জিয়া বাইরে থেকে লাভ কী তাঁকে কারাগারে, বর্তমান সরকার ভুল পথে চলছে বলে মনে …

Leave a Reply

Your email address will not be published.